বরিশাল কলেজের নাম অপরিবর্তনের জন্য সাধারন শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

সারাদেশ
আশিকুর ইসলাম শ্রাবন,বরিশাল প্রতিনিধি
সরকারি বরিশাল কলেজের নাম অপরিবর্তিত রাখার দাবীতে বরিশাল নগরীতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় কলেজের প্রাক্তন, বর্তমান শিক্ষার্থীসহ জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের সর্বস্থরের ছাত্র সমাজ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ নেন।
গতকাল শনিবার বেলা সোয়া ১১টায় নগরীর সদররোডে মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্ত টাউন হলের সামনের সড়কে এ কর্মসূচি পালিত হয়। এ সমাবেশে মূল বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন সরকারি বরিশাল কলেজ ছাত্রসংসদের সাবেক ভিপি ও বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট একে এম জাহাঙ্গীর।
এ্যাডভোকেট এ কে এম জাহাঙ্গীর তার বক্তব্যে বলেন, বরিশাল জেলা প্রশাসক কার স্বার্থে সরকারি বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তন করে মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে নামকরণ করার প্রস্তাব দিয়েছেন তা তিনি ভাল করে বলতে পারেন। সরকারি বরিশাল কলেজের নামের সাথে বরিশালের নামের স্মৃতি জড়িয়ে আছে এখানে যতই প্রভাব দেখানো হোক না কেন সরকারি বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তন করতে দেবে না কলেজের শিক্ষার্থীরা। তিনি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, যদি নাম পরিবর্তন করা হয় তাহলে বরিশালের ছাত্র সমাজের মাঝে ক্ষোভের বিস্ফোরন ঘটবে। তা জেলা প্রশাসক সামাল দিতে পারবেন না বলে মন্তব্য করেন বরিশাল কলেজের ইতিহাসে সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিপি একে এম জাহাঙ্গীর।
তিনি আরো বলেন আমরা অশ্বিনী কুমার দত্তকে খাটো করে দেখি না। যদি এখানে তার নামের স্মৃতি রাখতে হয় তাহলে ছাত্র হোষ্টেল, জাদুঘর নির্মাণ করে দেয়ার আহবান জানান।
এসময়ে আরো বক্তব্য রাখেন বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের অন্যতম নেতা রইজ আহমেদ মান্না,তিনি তার বক্তব্যে বলেন কিছু ব্যক্তিরা নিজেদের ব্যক্তিগত স্বার্থ হাসিলের জন্য বরিশালের অন্যতম ঐতিহ্যবান বিদ্যাপিঠ বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তনের জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। তিনি আরো বলেন যখনি বাংলার মাটিতে কিছু স্বার্থান্বেষী দালালেরা পায়চারি করে তখনি রুখে দাড়ায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। সাধারণ শিক্ষার্থীদের সকল প্রকারের ইতিবাচক নায্য দাবিতে বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগ সদা সর্বদা পাশে ছিলো আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। তিনি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তন করার জন্য যারা বিভিন্ন মহলে ষড়যন্ত্র করছে তাদেরকে সাবধান হয়ে যাতে বলছি কারন সাধারণ শিক্ষার্থীদের ক্ষেপালে কিন্তু কাউকে ছাড়বে না।
মানববন্ধন ও প্রতিবাদী বিক্ষোভ সমাবেশে একাত্বতা প্রকাশ করে আরো বক্তব্য রাখেন বরিশাল জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রাজীব হোসেন খান,
বরিশাল কলেজ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কিসমত শাহরিয়ার হৃদয় বলেন আমি ও আমার কলেজ ছাত্রলীগ ইউনিট শিক্ষার্থীদের এই মানববন্ধনকে পূর্ণ সমর্থন করছি এবং যেকেনো পরিস্থিতিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের পাশে আছি। তিনি আরো বলেন বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তন না করে শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে ছাত্রাবাস,বাস সার্ভিস চালু,কলেজ কার্ডের উন্নতিকরণ, কিছু অনার্সের বিভাগ বাড়ানো এবং ভর্তি কোঠা বাড়ানোর জন্য জোরালো দাবি করেন।
এসময়ে আরো উপস্থিত ছিলেন বরিশাল কলেজ ছাত্রলীগের অন্যতম নেতা
আশিকুর ইসলাম শ্রাবন,প্রাক্তন ছাত্র সিনিয়র সাংবাদিক আলম রায়হানসহ বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীরা।
এসময় কয়েকশত সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন ব্যানার প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুন নিয়ে সারিবদ্ধভাবে দাড়িয়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। এ সময় সড়কে কিছুটা যানজট সৃষ্টি হয়। তবে বিষযটি কর্তব্যরত পুলিশ দক্ষত সাথে নিয়ন্ত্রণ করে।
এব্যাপারে জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সরকারী বরিশাল কলেজ প্রাঙ্গনে অশ্বিনী কুমার দত্তের জন্ম ও মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে সকল অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এরপ্রেক্ষিতে বরিশালের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন, সুশিল সমাজের দাবীর কারনে আমি জেলা প্রশাসক দেখলাম অশ্বিনী কুমার দত্তের জমির উপর কলেজ প্রতিষ্ঠিত সেকারনে এ নাম করেনের প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। এখন বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ তারাই বিষয়টি বিবেচনা করে দেখবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *